কবিতা: কাগজের পাতায় || তিতাস সরকার

দ্যাখো দ্যাখো নিরুপমা—

বলেছিলাম না, একদিন তোমার নাম খবরের কাগজে বড় হরফে ছাপা হবে??

 

দ্যাখো দ্যাখো— ছাপা হয়েছে

               খুউব বড়ো করে।

 

এই দ্যাখো—

‘অফিস থেকে বাসায় ফেরার পথে চলন্ত বাসে নিরুপমা নামে একজন গৃহবধূ ধর্ষিত’।

 

কিছুক্ষণ আগেও রঙিন কাপড়ে জড়ানো ছিলো যে তাজা অক্ষত শরীরটা—

এখন তা মোড়ানো একটা সরকারি সাদা কাপড়ের ব্যাগে।

চোখ মুখ শরীরে হিংস্র পশুদের নখের আঁচড় স্পষ্ট।

 

তোমার খুবলে খাওয়া শরীরটার ছবি খবরের কাগজের প্রথম পাতায় সাদা কালো ফ্রেমে।

 

কি দুর্ভাগ্য বলো তোমার—

দেখে যেতে পারলে না তুমি।

 

ইচ্ছে ছিলো তোমার—

মস্ত বড় এডিটর হবে।

সবাই গর্ব করে বলবে আমাদের নিরুপমা সবার মুখ উজ্জ্বল করেছে,

অনেক স্ট্রাগল করে দাঁড়িয়েছে মাথা উঁচু করে।

 

অথচ, দ্যাখো—

ভেস্তে গেলো সব।

 

পঁয়ত্রিশ চল্লিশ বছরের চারটে হিংস্র জানোয়ার খুবলে খেলো তোমার আকাঙ্ক্ষিত স্বপ্নগুলোকে।

 

তোমার খুব ইচ্ছে ছিলো একদিন তুমি আকাশ ছোঁবে দু’হাতে।

স্বপ্ন দেখতে অনেক বড় হবার

স্বপ্ন দেখতে প্রতিটি ইচ্ছেকে ছোঁবার।

 

ইচ্ছে ছিলো খবরের পাতায় নাম লিখাবার।

কাগজে তোমার নাম বেড়িয়েছে নিরুপমা।

 

তুমি ওঠো—

দ্যাখো নিরুপমা!

চোখ দুটি খোলো!

দ্যাখো— খবরেব কাগজে তোমার নাম এসেছে।

দ্যাখো নিরুপমা!

দ্যাখো!