করোনাকালীন ঈদ

ফারুক হোসেন

বন্ধ সকল কেনাকাটা,
সাজগোজে পূর্ণাঙ্গ ভাটা,
নেই হ্যান্ডশেক কোলাকুলি,
শূন্য সবার খুশির ঝুলি।

আপনজনের সঙ্গে দেখা
বন্ধ, সবাই অন্ধ একা,
কুশল বিনিময়ের পালা,
নেই, যেনো অদৃশ্য তালা।

লকডাউনের মানুষ যারা,
ঈদের নামাজ ঘরেই তারা-
শেষ করে, শেষ করলো খাওয়া,
রুদ্ধ সমাজ প্রীতির হাওয়া।

বন্ধ বাড়ি পাড়ায় যাওয়া,
বাইরে ঘরে ইচ্ছে খাওয়া,
নেই সমাবেশ নামাজ মাঠে
নীরব ঘরে ও তল্লাটে।

ফোনেই নিলাম কুশলাদি,
ঘরের কোনে একটু কাঁদি,
সালাম দেওয়া মুরুব্বিকে,
রইলো না আর আজকে টিকে।

নেই ছোটদের ঈদ সেলামি
এখন একটা জীবন দামি,
ঈদের খরচ বাঁচলে সুধা
মিটায় ভুখার অন্নক্ষুধা।

ঘরের মানুষ ঘরেই আছি,
এবার যদি যুদ্ধে বাঁচি,
ফের হবে ঈদ ভবিষ্যতে,
আগের মতে সবার মতে।

ভুলবোনা দুই হাজার বিশ এ,
ঈদের আসল অর্থ কিসে,
রদ করেছি ঈদের মানে
এমন হবে কেইবা জানে?

কোভিড উনিশ কুলক্ষণা,
আনলো কষ্ট বিড়ম্বনা,
কষ্টে ছিলাম আমরা কতো,
ঈদ ছিলোনা ঈদের মতো।

দিচ্ছি কথা, পরের ঈদে,
থাকবেনা আর কোভিড দ্বিধে,
কোভিড উনিশ ভঙুর ক্ষয়ী,
আমরা মানুষ হবোই জয়ী।

আপনার মতামত দিন