কোথায় তোমার মানবিকতা ,কোথায় তোমার মনুষ্যত্ব

চিত্তদন্দ্ব
জয়া আচার্য্য
কুয়াশার চাদরে বন্দী , সিন্ন্ধ শীতের সকাল
উষ্ণ রোদের বিচরণে কাটছে না আর প্রহর
আঠারো সালের এমন দিনে ,চলছিল এক প্রাণ
শহুরে জীবনে যান্ত্রিক বাহন হতাশ ধুলো পার
বাস,ট্রাম আর সিএনজির ধূলো করে মাখামাখি
যাচ্ছিল মেয়েটি প্রাইভেট পড়তে সকলি দুয়ার ফাঁকি।
পথে প্রান্তরে যাত্রীদের ছোটাছুটি ,বড্ড কোলাহল
হরেক রকম বিষাক্ত অভিজ্ঞতায় হবে চাঞ্চল্যকর তোমার প্রাণ
খুলনা শহর ,শহর হলেও শান্তির অস্থির নীড় সকাল হতেই তাই তো শুনি অশান্তির বিজ্ঞপ্তি
সিএনজিতে যেতে কি সব চিন্তা যেন সে করে  হঠাৎ যখন থামল মোটর বেকারির সামনে
চক্ষু যেতেই অপর প্রান্তে কেঁদে উঠল অতৃপ্ত এ মনকে বলেছে শহরে এসে স্বচ্ছলতার এ প্রাণ ও মন
কে বলে গরীবত্ব গ্রামেই বিদ্যমান
গ্রামের মানুষ কাজের খোঁজে এসে শহরে ধুকে ধুকে হারায় এ প্রাণ
করে বাধ্য মা বাবাকে বস্তিতে থাকতে
     গ্রামের দুমুঠো অন্ন ও যে জোটে এ শহরের বাতাসে
কোথায় কাজ,কোথায় বাস ,পারবে কি দিতে তার চাহিদার সন্ধান
          ক্ষয় করিয়া গ্রামের চটি বৃদ্ধ বাবা মা ,পড়িল বসিয়া      রাস্তার পাশে বিশাল বেকায়দায়
বৃদ্ধাকে দেখিয়া ধুকরে উঠে প্রাণের বিন্দুবীণা
পরনে এক ময়লা শাড়ি,এলোমেলো ছেড়া চুলে ঘেরা
     পানির অভাবে ছটফট তার প্রাণ,খুজছিল ক্ষুধার তৃপ্তি
    সামনেই ছিল পরে সিদ্ধ ডিম ,কাগজে মোরা সবটি
সামান্য খাবার শীতের সকাল করছিল তার যন্ত্রণা
শান্তি হতো যদি ডিম টি উদরে পড়িত তা
কি করে পড়িবে , হেন ক্ষীণশক্তিতে হল সংকুলান দুর্বল তার দেহ
সামনে পড়ে থাকা ডিমটি করবে যে সে গ্রহণ
   তাহার শক্তি যেন লইয়া গিয়াছে ধূসর বিদ্রোহের বারণ
পেটে ক্ষুধা ,শরীরের দুর্বলতা ,সামনে ছিল সামান্য সিদ্ধ ডিম
শক্তি সংকোচে পড়ে থাকা অন্নও যেন তা স্বপ্নের মুকুট
যাচ্ছে মানুষ পথে ঘাটে ,দেখছে সবাই তাকে
   করবে কে সাহায্য ভাই ,সংকল্প সংশয় সৃষ্টি করে
ব্যস্ত মানুষ,ব্যস্ত শহর,ব্যস্ত যানবাহন
কে করিবে কদর যে তার,বৃদ্ধা হয়ে তাই অসহায়ত্বের বরণ
থাকতে আর না পারিয়া পড়িল মেয়েটির পা বাইরে সিনজি হতে
সিদ্ধ ডিম টি তুলে সেথায় মুখে দিল সেই বৃদ্ধার
জলের সহিত তাকে দিল তার মায়ের দেয়া টিফিন
চক্ষুর অশ্রু প্রমাণ দিয়েছিল ,বৃদ্ধার তীব্র ক্ষুধার দহন
খাবার শেষে নিয়ে ঠিকানা ছেড়ে এল সে বৃদ্ধাকে
পরিচিতেই বাসায়
বাসা বাড়িতে কাজের জীবন বৃদ্ধার ,বড় ব্যাকুল শঙ্কা তার
শহরের বুকে ইটপাথরে এমনভাবেই ক্ষয় হচ্ছে মনুষ্যত্ব
কোথায় মানব এ যে দানব,নির্মম মনের বাকচিহ্ন
হাজার এমন বৃদ্ধা , পথশিশু সুবিধাবঞ্চিত হয়ে অভুক্ত হয়ে ই আছে
    একবারটি চক্ষু মেলিয়া দেখিয়াছ ,শুনিয়াছ কি কভু তাদের হৃদয়ের মরম ব্যাথা
   কখন কি নাড়া দিয়ে উঠেনি মনের এক ছোট কোণে থাকা অপ্রস্তুত বিবেক
ডুকরে কি সে বলে উঠেনি হে মানব বলো তোমায়       কি নামে তব ডাকি
এ ডাক যে বিবেকের লজ্জার কারণ
কোথায় তোমার মানবিকতা ,কোথায় তোমার মনুষ্যত্ব
নিরাময় তো দূরে থাক ,কখনও কি জানতে চেয়েছ মানুষের কষ্টের , অসহায়ত্বের কারণ
স্বার্থপর তুমি
আত্মকেন্দ্রিক তা কে দিতে পারনি তুমি বির্সজন
বিবেক থেকে ও ব্যর্থ তুমি ,করনি তাকে যথাসময়ে ব্যবহার
লজ্জা তুমি মানবতাহীন মনুষ্যজাতি

আপনার মতামত দিন