কোয়ারেন্টাইনের দিনগুলোতে অর্ধশতাধিক বই পড়েছি

ইস্রাফিল আকন্দ রুদ্র:

আমি ইস্রাফিল আকন্দ। এ বছর এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছি । ভেবেছিলাম পরীক্ষার পর ঘুরবো; এখানে সেখানে যাবো, এটা সেটা করবো কিন্তু তা আর হলো না। করোনা একটুও করুণা করেনি ! ছোট থেকেই কবিতা লিখতে চেষ্টা করি‌। পরীক্ষার কারণে বেশ কয়েকমাস কবিতা থেকে দূরে সরে গিয়েছিলাম। এখন সেটা পুষিয়ে দিচ্ছি; লিখছি। আমার জন্য লিখছি , আমার শুভাকাঙ্ক্ষীদের জন্য লিখছি‌।একটা বড় প্ল্যান ছিল পরীক্ষা শেষে রাজশাহী ( চাঁপাইনবাবগঞ্জ) দাদা বাড়িতে বেড়াতে যাবো । প্রস্তুতিও নিয়েছি কিন্তু এর মাঝেই শুরু হলো লকডাউন।আর যাওয়া হলো না ।কবে যাবো এটাও বলতে পারছি না। পরিস্থিতি তো আস্তে আস্তে ভয়াবহতার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে।তবে নিজের কাছে ভালো লাগার খবর এই যে -কোয়ারেন্টাইনের দিনগুলোতে অর্ধশতাধিক বই পড়েছি।ছবি তুলতে পছন্দ করি। বাসার আশেপাশেই ছোটাছুটি করি ছবি তোলার জন্য। আরেকটা কাজ শিখছি নিজে নিজেই ব্যানার, ম্যাগাজিন ইডিটিং। বন্ধুদের কতদিন হয় দেখি না, একসাথে হই না ; মনে হয় এক কোটি বছর হয় তাদের সাথে দেখা নেই। মেসেঞ্জারে, ফোনে কথা বলে তো মন ভরে না। পৃথিবী অসুস্থ। সুস্থতার জন্য প্রাণপণ চেষ্টা করে যাচ্ছি আমরা। পৃথিবী সুস্থ হলে সব স্বাভাবিক হবে। আমরা একসাথে হবো,আড্ডা দিবো ,ঘুরবো, ফিরবো‌।আসলে দিন কেটে যায় চোখের পলকে-ই । কীভাবে দুইটা মাস শেষ হলো টের-ই পেলাম না। কতশত ভাবনা ছিল কিছুই হলো না।হবে , হবে; পৃথিবীটা সুস্থ হোক ।ভালো থাকুক পৃথিবীর সবাই।ভালো যেনো থাকি আমি।

আপনার মতামত দিন