জিনের মসজিদে ভ্রমণ!

আবু তারেক বাঁধন

নাম বালিয়া মসজিদ হলেও স্থানীয়দের কাছে ‘জিনের মসজিদ’ নামেই পরিচিত। স্থানীয়দের ভাষায় জিনেরা একরাতে এই মসজিদের পুরো কাজ করলেও গম্বুজ বানানোর সময় দিনের আলো ফুটে যায় যার কারণে তারা গম্বুজের কাজ বাকি রেখেই চলে যায়। আসলে সত্যিকারভাবে এই মসজিদ গড়ে তোলেন দিল্লি থেকে আগত এক স্থপতি যাকে এনেছিলেন মেহের বক্স নামের এক জমিদার।

শত বছরের পুরোনো এই মসজিদ অনেক পরে এসে মানুষের দৃষ্টিগোচর হয়েছে এবং গম্বুজ তৈরি সহ অন্যান্য সংস্কার কাজ চালানো হয়েছে। মসজিদের দেয়ালেই ইট দিয়ে কলসি, পদ্ম, ঘন্টা ইত্যাদির নকশা করা হয়েছে।

যেভাবে যাবেন:
ঢাকা থেকে ঠাকুরগাঁও আসতে হবে প্রথমে। এসে বাসস্ট্যান্ড থেকেই বাস কিংবা অটোরিক্সায় করে ভুল্লিবাজার নামতে হবে। বাসে ভাড়া নিবে ১৫ টাকা আর অটোরিক্সা রিজার্ভ করলে ১০০ টাকা। আধাঘন্টা পর ভুল্লিবাজার নেমে সেখান থেকে আবার ভ্যানযোগে ৩ কিলো।গ্রামের রাস্তা ধরে ভিতরে এগোলেই মসজিদ পেয়ে যাবেন। ইতিহাসকে জানুন, ঐতিহ্যকে আকড়ে ধরার লক্ষে বেরিয়ে পড়ুন। যেখানে সেখানে আবর্জনা না ফেলে নির্দিষ্ট স্থানে ফেলুন,পরিবেশ বাচাতে নিজেকে সচেতন করুন।

আপনার মতামত দিন