ফুটবল খেলতে ভালো লাগে : আলিফ

পরিচয় বন্ধুরা, কেমন আছো তোমরা? আশা করি নিশ্চয়ই ভালো আছো আর স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলছো। আজ সাক্ষাৎকার পর্বে নিয়ে এলাম আরও একজন নতুন অতিথিকে। যার নাম আফসার হোসেন আলিফ। তবে তাকে সকলে আলিফ নামেই চেনে। সে টেলিভিশনে খুব বেশি কাজ না করলেও অনেকগুলো ভালো ভালো কাজ করেছে। করোনা পরিস্থিতি না থাকলে হয়ত সে আরও বেশি কাজ করতে পারত। কেননা সে সাংস্কৃতিক জগৎকে অনেক বেশি ভালোবাসে। সে একজন ভালো শিশু অভিনেতা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে চায়। সে ১টি নাটক, ৮টি টিভিসি ও ২টি ওভিসিতে অভিনয় করেছে। তার অভিনীত নাটকটি হলো দুরন্ত টিভির ‘মেছো তোতা গেছো ভূত’। আর টিভিসিগুলো হলো ভিম মুজিববর্ষ, নসিলা, টেস্ট মি, ডানো মিল্ক, সুপারস্টার লাইট, ফ্রেশ ক্রিস্পি ওয়েফার ইত্যাদি।
শিশুতারকা আলিফের এ সাক্ষাৎকারটিও গ্রহণ করেছেন টিন এবং ইয়ুথ প্লাটফর্ম পরিচয়’র ইয়ুথ কো-অর্ডিনেটর, শিশুসাহিত্যিক তুফান মাজহার খান।

পরিচয়: কেমন আছো আলিফ?
আলিফ: ভালো আছি। আপনি?

পরিচয়: হ্যাঁ, আমিও ভালো। তা তোমার বয়স কত এবং বর্তমানে কোন ক্লাসে পড়ছো?
আলিফ: আমার বয়স ১০ বছর। আর অামি চতুর্থ শেণিতে পড়ি।

পরিচয়: মিডিয়ার কাজে তোমার অনুপ্রেরণা দানকারী কে?
আলিফ: অামার বাবা।

পরিচয়: আচ্ছা, তা প্রথম কার মাধ্যমে কাজে প্রবেশ করেছিলে মনে আছে?
আলিফ: হ্যাঁ, পিয়াস ভাইয়ার মাধ্যমে।

পরিচয়: লেখাপড়া এবং কাজ, এ দুটো একসাথে সামলাতে হিমশিম খেতে হয়?
আলিফ: না।

পরিচয়: বর্তমান করোনাকালে কীভাবে সময় কাটাচ্ছো?
আলিফ: পড়াশোনা এবং খেলাধুলা করে।

পরিচয়: ভেরি গুড, তবে খেলতে কিন্তু বাইরে যাওয়া যাবে না। আর করোনাকালে কি কোনো শুট করেছো?
আলিফ: হ্যাঁ, করেছি অল্প। তবে সম্পূর্ণ স্বাস্থ্যবিধি মেনে।

একটি শুটিং সেটে জয়া আহসানের সাথে আলিফ

পরিচয়: বেশ ভালো, তোমার স্কুলে কতজন বন্ধু আছে? বন্ধুদের মিস করো?
আলিফ: পাঁচ জন। তাদের অনেক মিস করি।

পরিচয়: তোমার প্রিয় ব্যক্তি কে?
আলিফ: আমার বাবা।

পরিচয়: তোমার প্রিয় জায়গা কোনটি?
আলিফ: কক্সবাজার।

পরিচয়: আর প্রিয় খাবার কোনটি?
আলিফ: বার্গার।

পরিচয়: অবসরে কী করতে ভালো লাগে?
আলিফ: ফুটবল খেলতে ভালো লাগে।

পরিচয়: বাহ্ দারুণ তো! সবার ক্রিকেটে ঝোঁক বেশি। তুমি তো ইউনিক। আচ্ছা যাই হোক- সাগর, নদী এবং পাহাড় এগুলোর মধ্যে কোনটি বেশি ভালো লাগে?
আলিফ: সাগর।

পরিচয়: চমৎকার! বড় হয়ে তোমার যদি মানুষের জন্য কোনো ভালো কিছু করার সুযোগ হয় তাহলে তুমি কী করতে চাও?
আলিফ: আমি গরিব মানুষের জন্য একটা হাসপাতাল তৈরি করতে চাই।

পরিচয়: দারুণ চিন্তা! তাহলে তো বড় হয়ে নিশ্চয়ই ডাক্তার হবার ইচ্ছে আছে?
আলিফ: হ্যাঁ, আমি ডাক্তার হয়ে মানুষের সেবা করতে চাই।

পরিচয়: শুভ কামনা তোমার জন্য। তোমার ইচ্ছা পূরণ হোক সেই কামনা রইলো। এবার বলো, টিভিতে কাজ করায় তোমার বন্ধুদের প্রতিক্রিয়া কী? তারা তোমার সাথে কেমন আচরণ করে?
আলিফ: আমার বন্ধুরা অনেক বেশি খুশি। আমার সাথে অনেক ভালো আচরণ করে।

পরিচয়: তোমাকে কি শিক্ষকরা অন্য সবার থেকে একটু আলাদাভাবে মূল্যায়ন করে? শিক্ষকদের প্রতিক্রিয়া কেমন?
আলিফ: হ্যাঁ। শিক্ষকরা আমার কাজ দেখে অনেক বেশি খুশি হয়। অামার কাজ অনেক সুন্দর বলে। অনেক অাদর করে।

পরিচয়: বাহ্! পরিচয় (porichoy.net) সাইটটি কি কখনো ভিজিট করেছো? যদি করে থাকো তাহলে এ সাইটটি তোমার কেমন লেগেছে?
আলিফ: হুম ভিজিট করেছি, অনেক ভালো লেগেছে।

পরিচয়: পরিচয়’কে সময় দেওয়ার জন্য তোমাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ। ভালো থেকো।
আলিফ: পরিচয়কেও ধন্যবাদ। আপনিও ভালো থাকবেন।

আপনার মতামত দিন