বর্ষার ছড়াগুচ্ছ

আলাউদ্দিন হোসেন’র একগুচ্ছ ছড়া   

রুপালি মেঘ

সঘন মেঘ অঝোর ধারা
রুপালি জলের গান
ভর আষাঢ়ে থৈথৈ আকাশ
গ্রাম বাংলার প্রাণ।
আষাঢ় প্রিয় কবি কন্ঠে
শত কবিতার সুর
গগণ তলে মেঘের ছোঁয়া
ছুটে চলে বহুদূর।
আষাঢ়জুড়ে বৃষ্টিধারা
ভেজা মাটির ঘ্রাণ
সাদা মেঘের লুকোচুরি
রুপ বর্ষার প্রাণ।

মেঘের ছায়া

আষাঢ় শ্রাবণ বর্ষাকালে
আকাশ মেঘের ছায়া
নতুন জোয়ার শীতল বাতাস
জুড়িয়ে যায় কায়া।
দূর আকাশে মেঘের ছায়া
নিত্য করে খেলা
খেলাচ্ছলে দিবানিশি
উড়ায় রুপের ভেলা।
বর্ষা মায়া মেঘের ছায়া
আকাশ পানে উড়ে
দিবানিশি রুপের ভারে
বৃষ্টি হয়ে পড়ে।

বৃষ্টির ছোঁয়া

আষাঢ় শ্রাবণ বৃষ্টি ঝরে
হাসে সবুজ বন
খালে বিলে ব্যাঙের নাচন
খুলে আপন মন।
সবুজ বনে নেচে বেড়ায়
প্রজাপতির ঝাঁক
ঘন বৃষ্টির ছোঁয়া পেয়ে
হাসে নদীর বাক।
আষাঢ় শ্রাবণ বৃষ্টি পেয়ে
মরুভূমি হাসে
রিমঝিম বৃষ্টি ছোঁয়ায়
বর্ষা চলে আসে।

আষাঢ়

আষাঢ় এলো বৃষ্টি নিয়ে
নদে নতুন বান
গ্রীষ্ম তাপের বিদায় দিয়ে
প্রকৃতি পেলো প্রাণ।
আষাঢ় এলো ভরা গাঙে
নিয়ে সাধের খেয়া
মেঘাচ্ছন্ন আকাশ পেয়ে
হাসে কদম কেয়া।
আষাঢ় এলো জোয়ার নিয়ে
নৌকাজুড়ে পাল
হাওর বাওর হেসে ওঠে
ভাসে নানা জাল।

আপনার মতামত দিন