শিশুদের মুখে হাসি ফোটাতে স্মাইল পরিবার

আমানুর রহমান, নারায়ণগঞ্জ

স্মাইল-সিক্রেট অফ ইউর হ্যাপিনেস, নামটি মাঝেই লুকিয়ে আছে এর প্রকৃত অর্থ। বলছি, স্মাইল নামক একটি সংগঠনের কথা। যে সংগঠনের সদস্যরা বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলার সুবিধাবঞ্চিত মানুষদের মাঝে লুকিয়ে থাকা সুখ উপহার দেওয়ার মাধ্যমে তাদের মুখে হাসি ফোটানোর জন্য নিরলসভাবে প্রচেষ্টা করে চলেছে। সেই ধারাবাহিকতায় স্মাইলের উদ্যোগে নারায়ণগঞ্জ শাখায় পথশিশুদের জন্য ‘ইচ্ছের হাসি স্কুল’ এর উদ্বোধন করা হয়। উক্ত আয়োজনে বাচ্চাদের শিক্ষাসামগ্রী বিতরণ এবং খাবার দেয়া থেকে শুরু করে বিভিন্ন কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন ফাউন্ডার ফারাবি রহমান আলিফ, কো- অরডিনেটর মনিরুল ইসলাম মুন্না, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মাস্ফিক এবং রুহুল আমিন।
এছাড়া স্মাইল পরিবারের ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জ শাখার সদস্যরাও উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানের মাধ্যমে স্মাইল পরিবার চাষাড়ায় রেলওয়ে স্টেশনে অবস্থানত ৩০ জন শিশুকে শিক্ষাসামগ্রী প্রদান এবং তাদেরকে নিয়মিত পাঠদানের দায়িত্ব গ্রহণ করা হয়।
এর পূর্বেও স্মাইল পরিবার নারায়ণগঞ্জ জেলায় “ইচ্ছের দেয়াল” নামক একটি মানবতার উদ্যোগ বাস্তবায়ন করেছিলো,যেখান থেকে দরিদ্র ও অসহায় মানুষেরা প্রয়োজন মতো বস্ত্র সংগ্রহ করতে পারছেন।
এছাড়া আগামী পহেলা মে আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবসে উপলক্ষে স্মাইল নারায়ণগঞ্জ পরিবার সকল স্তরের শ্রমিকদের মাঝে খাদ্য বিতরণ এবং তাদের মুখে হাসি হাসি ফোটানোর লক্ষ্যে কাজ করবে।
স্মাইল পরিবারের মতে, আমরা যদি অন্তত একজন অসহায় মানুষের দায়িত্ব নিতে পারি,তবে বাংলাদেশের দুঃখ নামক শব্দটি ঘুচে যাবে।
মানবতার জন্য স্মাইলের কার্যক্রম সত্যিই প্রশংসনীয়।আমাদের সকলেই উচিত মানুষের কল্যাণে এভাবেই আত্মনিয়োগ দেওয়া।