সমুদ্রকে বাড়ি ফেরানো যায়না

মুনিরা মেহেক’র একগুচ্ছ কবিতা:

১.
পৃথিবীর হাওয়ায় এক মরা মাছ উড়ছে
আমার বিশ্বস্ত চোখ নদী পার হয়ে কোথায় গত হয়
শহরে কোন গৃহস্থ ঘর নাই
আছে মুদি দোকান আর পানশালায় মৃৃত উদ্বাস্তু পাখি
আমি তোমার স্মৃতি
এমন বক্তব্য নিয়ে সেরা যাদুকর ঘরে পৌছায়
পৌর কাউন্সিল কুকুরের মৃত্যু বাসনা রাখে
মাছ বিষয়ে উৎকন্ঠা ফুরিয়ে যায়
প্রভু আপনার হাত নাই বলে কোন হাত স্পর্শ করেন না
এমন বিলাস আমার হৃদয়ে রাখি
মরা মাছ উড়ে কোথায় পৌছে যাবে
শব্দের সৎকার নিয়ে মেতে আছে আমাদের বাড়ি
২.
আমার চোখগুলো অন্ধ হতে থাকে
গত হওয়া সকল কথার দাগ মুছে যায় আজ
তবু সমুদ্রে যাই
বন্ধ্যা নারীর মত অজস্র খেটে খাওয়া ভোরে
আমার নিতম্ব ঘিরে তোমার মেহেদীবাগান জাগে
কোথাও আয়ু নাই আর
বাগান বিলাসী ঘাসগুলোয় পাখিদের উড়া উড়ি দেখি
৩.
বনেলা পাখির বুকে আটকে আছে হাওয়ার বিলাপ
সমুদ্রকে বাড়ি ফেরানো যায়না
কিছু তরল ঔষধি আছে আমাদের বারান্দায়
তুমি নিতে পারো ছায়া
ধুসর দেয়ালে আমার নাক আটকে আছে
এদিকে সেলটিকের লবণ জলে মাতাল মেঘের মৃতদেহ
আসক্তি বাড়ছে প্রভু
তোমার গোপন ফ্লাক্সে বাগান নিয়ে ঘুরো
এমন শুনেছি বহুদিন হলো গত
জীবনান্দ পৃথিবীতে নাই
পাখিরা আছে
খাঁচার দেয়ালে বসে শীষ দেয় লোকে
স্বর্গের কোলাহল মুছে যায় তোমার চুলচিত্রে
৪.
মাতাল এক দরজা খুলে যায় রোজ রাতে
পড়শি পড়তে জানেনা আমার হাটা-ধ্বনি
তলিয়ে যাচ্ছে মেঘালয়ের পাহাড়
তলিয়ে যাচ্ছে জৈন্তার পাহাড়
মেঘের ভেতর দিয়ে আমার অন্ধ আরেক চোখ
এলোমেলে ঝলসে উঠছে পোড়া চাঁদের হাড়
কে তুমি খুজতে আছো দরজার কাছে
আগুনে আমার প্রিয়তম উঠোন
তোমার অতল চোখ কন্ঠস্বর ধরে
অধৈর্যে মেতে আছে আমার নামটি ধরে
তবু একদিন মেহেক মেহেক বলে ডাকো
৫.
পায়ে পায়ে কোথায় চলে যাই
ঘড়ির কাটাগুলো লাফিয়ে লাফিয়ে দূরে চলে যাচ্ছে
গতিবিদ্যা আমি শিখতে পারিনা
শূন্যস্থান ঘিরে আছে পোষা মাছির উড়াল
পায়রা উচ্চতায় দিকবেদিক ঘুরছে পরাগায়িত রেণু
.
মুনিরা মেহেক | কবি | জন্ম সিলেটে।

আপনার মতামত দিন