সরকারকে একটা অনুরোধ

সোলায়মান সুখন

বিআরটিসি যত বাস আছে সবগুলোকে রাস্তায় নামান।প্রতিটা মন্ত্রণালয় আর সরকারি প্রতিষ্ঠানকে বলেন তাদের পরিবহন পুল থেকে বাস মিনিবাস এখন গণপরিবহনের কাজে লাগাতে সাময়িক ভাবে। আন্তর্জাতিক বাজারের দামে তেল দেন জ্বালানি মন্ত্রণালয়কে বলে যাতে ভাড়া কমে আসে ৫০% চেয়েও কম ,আইসিটি মন্ত্রণালয়কে বলেন উবার স্টাইলে মনিটর করতে কোন বাস কোথায় কখন ঘাপটি মেরে আছে বা কতজন যাত্রী নিয়েছে ,বাসগুলোতে ফেসিয়াল রিকগনিশন সফটওয়্যার দিয়ে নজর রাখুন করোনা আক্রান্ত বা কোয়ারেন্টাইনে থাকা কেউ যেন যাতায়াত না করে। তরপর রাস্তায় নামিয়ে দেখেন মানুষ কতটা উপকার পায় আর আর আপনারা কতটা বাহবা পান।

বেসরকারি পরিবহন মালিকরা গাঁইগুঁই করলে বলেন আপনারাও কমান ভাড়া ,যে লস হবে মনে করেন সেটা মানুষের কল্যানে ডোনেট করেছেন।

দেশের শীর্ষ ধনীদের বলেন ত্রাণ তহবিলে কোটি টাকার চেক দিয়ে ফটোশুট করার চেয়ে বেশি খুশি হবেন যদি সবাই যার যার পরিবহন পুল থেকে যানবাহন দিয়ে সাধারণ মানুষের কষ্ট লাঘবে এগিয়ে আসে। যার পরিবহন পুল যত বেশি যাত্রী পরিবহন করবে তাদেরকে আলাদা করে পদক দিয়ে সম্মানিত করবেন এই দূর্যোগ শেষে।

সবাইকে বোঝান আগে মানুষ বাঁচলে পরে অনেক ব্যবসা করা যাবে। গাদাগাদি করে যত বেশি মানুষ যাতায়াত করবে তারা যদি আক্রান্ত হয় করোনায় তাহলে এই ৬০% বেশি ভাড়ার টাকা দিয়ে চিকিৎসার ১% খরচ ও উঠবে না আর দেশ একটা ভয়ানক বিপদে পরবে।

প্রস্তাবটি বিবেচনা করার অনুরোধ রইলো।

লেখক: হেড অফ মার্কেট ডেভেলপমেন্ট এন্ড কমুনিনিকেশন, নগদ।
(লেখাটি সোলায়মান সুখনের ফেসবুক স্ট্যাটাস থেকে নেওয়া)

আপনার মতামত দিন