কবিতা: তোমার অপেক্ষায়

আরও একটা ঈদ কেটে গেল,
তোমার অপেক্ষায়-
আজও বসে ছিলাম আমি।
কেন এলেনা তুমি, কেন?
আমি যে অধীর আগ্রহে,
পথ চেয়ে ছিলাম তোমার আশায়!

একটি বারও কি পড়েনি মনে,
এই আমাকে তোমার?
প্রতিটা মুহূর্তে আমি যে
তোমার স্বপ্ন বুনী এই হ্নদয়ে
সে কি তুমি জানো না?

আমাকে কেন এভাবে পোড়ালে,
পুড়ে পুড়ে আমি যে দগ্ধ
এক জীবন্ত লাশে পরিণত হয়েছি!
কেন তুমি ভুলে গেলে,
ভালবাসার রঙিন ছোঁয়া গুলি?

আমায় কি মনে পড়েনা তোমার?
তিলে তিলে শেষ করেছো,
আমার জীবন প্রজাপতিকে।
তবু কেন হওনি তুমি শান্ত?

বিষাদের আগুনে পুড়ে
আমায় কেন করলে শেষ?
আমি যে অপেক্ষায় ছিলাম
গত এগারোটা বছরের প্রতিটা সেকেন্ড।

কখন তুমি আসবে,
আমায় ভালবাসার চাদরে জড়াবে?
আমি যে পথের দিক চিনিনা
তোমায় কীভাবে খুঁজে পাব বল না?

আমার মনের ছোট্ট ঘরে
বসতি গড়ে কোথায় হারালে?
আমি যে তোমার অপেক্ষায় এখনও
বসে থাকি জানালাটা খোলা রেখে।

অচেনা তুমি আমার যে,
এত জানা বোঝা-
তবুও কেন আমাকে রেখেছো
অন্ধকার এক ভালবাসার ছোট কুটিরে?

আমি যে আর পারছিনা
মেনে নিতে তোমার এই অবহেলা ।
একে একে সব হারিয়ে গেল
তবুও কেন এলেনা তুমি?
আমি যে তোমার অপেক্ষায়
এখনও বসে থাকি
ঐ বৃষ্টিভেজা রাত্রি জেগে।

আমার দুই নয়নে
অবিরাম বৃষ্টি যে ঝরে
সেকি তুমি জেনেও জানোনা!
এক পাহাড় কষ্ট বুকে চাপা দিয়ে,
এখন আমি যে তোমার অপেক্ষায় আছি
অদেখা তুমি সেকি জানোনা?

জীবনটা নয়তো পুতুল খেলা
যে আবার নতুন করে খেলব দুজনে!
ভাল থাকার অভিনয় কেন
শুধু আমাকে করতে হয়?

এতগুলি বছর পরে কেন,
আজ মনে হচ্ছে-
পৃথিবীর সবকিছুই যে ছলনা দিয়ে
ঘেরা এক ছলনার মায়াজাল!
ভাল থাকি আমি কীভাবে বলোনা ,
আমি যে এখনও তোমার অপেক্ষায় আছি
মনের দুয়ার খোলা রেখে!

সাইফুল মানিক
আনন্দ মোহন কলেজ,
ময়মনসিংহ।

আপনার মতামত দিন